বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ ১৫ আষাঢ় ১৪২৯

পঞ্চগড়ে পাঠাগারে আগ্রহ নেই পাঠকের
পঞ্চগড় প্রতিনিধি
প্রকাশ: রোববার, ১৫ মে, ২০২২, ২:২৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

পঞ্চগড়ে পাঠাগারে আগ্রহ নেই পাঠকের

পঞ্চগড়ে পাঠাগারে আগ্রহ নেই পাঠকের

উত্তরের সীমান্ত ঘেষা চা, পাথর ও বিভিন্ন ফসল সমৃদ্ধ জেলা পঞ্চগড়। এ অঞ্চলের মানুষের এক সময় বই পড়ার প্রতি বেশ আগ্রহ ছিল। কিন্তু কালের বিবর্তনে তা হারিয়ে যেতে বসেছে।  আধুনিকতার ছোয়া ও ডিজিটাল তথ্য প্রযুক্তির বদৌলতে মানুষ কাগজে শব্দ ভরা বই হতে মুখ ফিরিয়ে নিতে শুরু করেছে।

সমৃদ্ধ পাঠাগার সব ধরণের পাঠকের জ্ঞানতৃষ্ণা নিবারণ করে। মানুষের নৈতিক চরিত্র গঠনে অবদান রাখে। বই ছাড়া প্রকৃত মনুষ্যত্ব লাভ করা যায় না। তাই পাঠাগারের মাধ্যমেই একটি জাতি উন্নত, শিক্ষিত ও সংস্কৃতিবান জাতি হিসেবে গড়ে ওঠে। 

মানুষের অনন্ত জিজ্ঞাসা, অসীম কৌতুহল। তার এই অনন্ত জিজ্ঞাসা, অন্তহীন জ্ঞান ধরে রাখে বই। আর বই সংগৃহীত থাকে পাঠাগারে। পাঠাগার হলাে সাহিত্য, ইতিহাস, ধর্ম, দর্শন, বিজ্ঞান ইত্যাদির এক বিশাল সংগ্রহশালা। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাষায়- 
“এখানে ভাষা চুপ করিয়া আছে, প্রবাহ স্থির হইয়া আছে, মানবাত্মার অমর আলােক কালাে অক্ষরের শৃঙ্খলে কাগজের কারাগারে বাঁধা পড়িয়া আছে।”

মানুষ সময়ের পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে উপলব্ধি করতে পারছে শুধু বেঁচে থাকার জন্য খাদ্য নয়, মনের জন্যও খাদ্য প্রয়োজন। পাঠাগার মানুষের ক্লান্ত ও বুভুক্ষু মনকে প্রফুলস্ন করতে পারে। পছন্দমতো জিনিসের সন্ধান দিয়ে তার মনের খোরাক জোগাতে সাহায্য করে। কিন্তু কালের বিবর্তনে, তথ্য প্রযুক্তির দৌরাত্ম্যে মানুষ এখন মোবাইল, কম্পিউটারে আসক্ত হয়ে পড়েছে। ছাত্র-ছাত্রীসহ সকল শ্রেণির পাঠক এখন নিজ গৃহে তাদের ব্যবহৃত মোবাইল, কম্পিউটারে নেটের মাধ্যমে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তের বিভিন্ন তথ্য মুহুর্তের মধ্যে পেয়ে যায়। তাই পাঠকের এখন আর পাঠাগারের দিকে আগ্রহ নেই।

জহির উদ্দিন সরকারি গ্রন্থাগার হতে প্রাপ্ত তথ্যমতে, সেখানে প্রতিদিন আসছে ৮-১০টি জাতীয় দৈনিক এবং প্রতি মাসে আসছে কয়েকটি নতুন ম্যাগাজিন। আশপাশে আছে সরকারি স্কুল, কলেজ, মাদরাসা। কিন্তু সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দুটি পাঠক কক্ষে মোট পাঠকের সংখ্যা ৫-৬ জন। একই চিত্র মীরগড় আদর্শ পাঠাগারে গিয়েও  চোখে পড়ে।

জহির উদ্দিন গ্রহন্থাগার অফিস সূত্রে জানা যায়, প্রয়োজনের অধিক বই থাকা সত্ত্বেও দিন দিন পাঠক কমে যাচ্ছে জেলার সবচেয়ে বড় এই গ্রন্থাগারটিতে। এখানে রয়েছে পাঠক রেফারেন্স, পরামর্শ, সাম্প্রতিক তথ্যজ্ঞান, নির্বাচিত তথ্য বিতরণ, তথ্য অনুসন্ধান, পুস্তক আদান-প্রদান, ফটোকপি, পুরাতন পত্রিকার তথ্য, বিনা মূল্যে ইন্টারনেট, শিশুদের জন্য টয় ব্রিজ ও মাইক্রো বিট সেবা প্রদানসহ অনেক কিছু।

করতোয়া কালেক্টরেট স্কুলের সপ্তম শ্রেনির ছাত্র অপুর্ব ও মাধুর্যকে পাঠাগারে টয় ব্রিজ সামনে নিয়ে মোবাইলে গেম খেলতে দেখা যায়। তারা বলে, আমরা আমরা এখানে টয় ব্রিজ দিয়ে বিভিন্ন প্রকার প্রযুক্তি উদ্ভাবনের চেষ্টা করি পাশাপাশি ইন্টারনেটের মাধ্যমে উন্নত বিশ্বের প্রযুক্তি গুলো অনুসরণ করি।

মকবুলার রহমান সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেনির ছাত্র বিপুল চন্দ্র বলেন, আমি এখানে আমার ক্লাশের বই নিয়ে নোট করে নিই।  মসলিম উদ্দিন(৬০) নামের এক পাঠক বলেন, আমি নিয়মিত দৈনিক পত্রিকাগুলো পড়ি, মাঝে মধ্যে বইও পড়ি। এখানে আগের মত আর পাঠক আসে না।

বই প্রেমী পল্লব বলেন, ইন্টারনেটের যুগে মানুষ এখন আর পাঠাগারে গিয়ে বসে বই, পত্রিকা পড়বে এমন আগ্রহ নেই। কেননা পাঠক এখন ঘরে বিছানায় শুয়ে মোবাইল, ল্যাপটপ, এমনকি মোবাইলে পত্রিকা, বই পড়তে পারে। আর এখনকার শিক্ষার্থীরা তো মোবাইলে পাপজি গেম, টিকটকে মগ্ন থাকে,বইয়ের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে।

জহির উদ্দিন সরকারি গ্রন্থাগারের গ্রন্থাগারিক হাবিব খাতুন  বলেন, এখানে কমবেশি পাঠক আসে। আমাদের এখানে দৈনিক পত্রিকা, সাপ্তাহিক পত্রিকা, ফ্রী ইন্টারনেট সুবিধা থাকায় ছাত্ররা গ্রন্থাগারের ভিতরে বসে না। বাইরেই বসে মোবাইলে কাজ করে। পাঠকের সার্বিক সুবিধা নিশ্চিত করতে এবং পাঠক সংখ্যা বৃদ্ধির জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত আছে। 

স্বদেশপ্রতিদিন/ইমরান

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: +৮৮০২-৮৮৩২৬৮৪-৬, মোবাইল: ০১৪০৪-৪৯৯৭৭২। ই-মেইল : e-mail: swadeshnewsbd24@gmail.com, info@swadeshpratidin.com
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।