মঙ্গলবার ১৬ আগস্ট ২০২২ ১ ভাদ্র ১৪২৯

ডিজিটাল জনশুমারীতে খুশি ঠাকুরগাঁওয়ের সাধারণ মানুষ
রেদওয়ানুল হক মিলন, ঠাকুরগাও প্রতিনিধি
প্রকাশ: শনিবার, ১৮ জুন, ২০২২, ৬:৩০ পিএম আপডেট: ১৮.০৬.২০২২ ৬:৩২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

ডিজিটাল জনশুমারীতে খুশি ঠাকুরগাঁওয়ের সাধারণ মানুষ

ডিজিটাল জনশুমারীতে খুশি ঠাকুরগাঁওয়ের সাধারণ মানুষ

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস ও বিভিন্ন কারণে কয়েক দফায় পেছানোর পর সপ্তাহব্যাপী শুরু হয়েছে ‘জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২। সপ্তাহব্যাপী এ শুমারি চলবে ১৫-২১ জুন পর্যন্ত। এটি দেশের ষষ্ঠ জনশুমারি। দেশের মোট জনসংখ্যা কত, তা জানতেই মূলত রেলস্টেশন, লঞ্চ টার্মিনাল, বাসস্ট্যান্ডসহ ভাসমান মানুষ গণনাসহ তাদের সম্পর্কে মৌলিক জনমিতিক, আর্থ-সামাজিক ও বাসগৃহসংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহের মধ্যদিয়ে শুরু হয়েছে জনশুমারি। তবে এবারের শুমারীতে ব্যবহার করা হচ্ছে ডিজিটাল ডিভাইস।

জানা যায়, ডিজিটাল এ শুমারী বাস্তবায়নে সারাদেশে একযোগে তথ্য সংগ্রহের জন্য তিন (৩) লাখ পঁচানব্বই (৯৫) হাজার ট্যাবলেট ব্যবহার করা হচ্ছে। এছাড়াও মাঠ পর্যায়ে সংগৃহীত তথ্য সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা নিশ্চিতে গাজীপুর কালিয়াকৈরে স্থাপিত বাংলাদেশ ডেটা সেন্টার কোম্পানি লিমিটেড এর টায়ার আইভি সিকিউরিটি সমৃদ্ধ ডেটা সেন্টা ব্যবহার করা হচ্ছে। মাঠপর্যায় থেকে বিডিসিসিএল হয়ে বিবিএস সার্ভারে আসার পূর্ব পর্যন্ত সংগৃহীত সকল তথ্যের নিরাপত্তা শতভাগ নিশ্চিত করা হচ্ছে বলে জানা যায়।

প্রথমবারের মত ডিজিটাল জনশুমারীতে আনন্দের হাসি ফুটেছে ঠাকুরগাঁওয়ের সাধারণ মানুষের মুখে। স্বল্প সময়ের মধ্যে পরিবারের সকল তথ্য দিতে পেরে ভোগান্তিহীন জনশুমারীকে সাধুবাদ জানিয়েছেন জেলার বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। অপরদিকে স্বল্প সময়ে অনেক পরিবারের তথ্য সংগ্রহ করতে পেরে কাজে মনোযোগ বেড়েছে শুমারী কর্মীদের।

তথ্য সংগ্রহকারী শুমারীকর্মীরা বলেন, জনশুমারী করার আগে  আমরা প্রশিক্ষণ নিয়েছি৷ কিভাবে আমরা ডিজিটাল ডিভাইসে তথ্যযুক্ত করব তা শেখানো হয়েছে। কোন প্রকার ভোগান্তি ও ঝামেলা ছাড়াই স্বল্প সময়ের মধ্যে ডিজিটাল পদ্ধতিতে আমরা সকল তথ্য অন্তর্ভূক্ত করতে পারছি। এতে সাধারণ মানুষেদের কোন সমস্যা হচ্ছেনা, আমরাও কোন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হয়নি। এবারে খুব সহজে ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহার করে আমরা স্বল্প সময়ে তথ্য যোগ করতে পারছি।

তথ্য প্রদান করার পর বেশকয়েকজন জানান, এর আগে কয়েকবার জনশুমারীতে তথ্য দিয়েছি। তথ্য গুলোতে প্রায় দেড় থেকে দুই ঘন্টা সময় লেগে যেত। আর নানান ধরনরে কাগজ লাগতো। আজকে মাত্র কয়েক মিনিট সকল ধরনের তথ্য দিয়ে দিলাম। কোন প্রকার ভোগান্তি ছাড়াই। এমন একটি উদ্যোগ নেওয়ায় কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানায়।

ঠাকুরগাঁও জেলা পরিসংখ্যান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আবু সালেহ মোঃ রব্বানী বলেন, চলমান জনশুমারীতে ঠাকুরগাঁও জেলায় ৩৪৭৮ টি ডিভাইস ব্যবহার করা হচ্ছে। পুরো জেলা জুড়ে ৩৪৭৮জন শুমারীকর্মী, ৬০৪ জন সুপারভাইজার ও ৩৫ জন জোনাল অফিসার কাজ করছেন। এবারেই প্রথম ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহার করে জনশুমারী হচ্ছে। কোন ঝামেলা ছাড়াই তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। এতে করে শুমারীকর্মী ও সাধারণ মানুষের মাঝে উৎসাহ ও উদ্দীপনা কাজ করছে।

স্বদেশপ্রতিদিন/ইমরান

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: +৮৮০২-৮৮৩২৬৮৪-৬, মোবাইল: ০১৪০৪-৪৯৯৭৭২। ই-মেইল : e-mail: swadeshnewsbd24@gmail.com, info@swadeshpratidin.com
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।