বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ ১৫ আষাঢ় ১৪২৯

অভিনেত্রীর রাশমিরেখার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০২২, ২:৫৩ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

অভিনেত্রীর রাশমিরেখার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

অভিনেত্রীর রাশমিরেখার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

ভারতের ওডিশার জনপ্রিয় টেলিভিশনের অভিনেত্রী রাশমিরেখা ওঝার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে সেখানখার পুলিশ। এই অভিনেত্রী ভুবনেশ্বরের নায়াপল্লী এলাকায় একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন। পুলিশ সেখান থেকেই তার মরদেহ উদ্ধার করে।

মৃত্যকালে তার বয়স হয়েছিল ২৩ বছর। তবে তার এই মৃত্যু নিয়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি শুরু হয়েছে। কারণ মৃত্যুটি কোন স্বাভাবিক নয়, রহস্যজনক মৃত্যু বলে দাবী অভিনেত্রী বাবার।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআইয়ের বরাত দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে হিন্দুস্তান টাইমস।

ওডিশার ডিসিপি গণমাধ্যমে জানান, রাশমিরেখার ময়নাতদন্তের রিপোর্টের অপেক্ষায় রয়েছে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করা হচ্ছে আত্মহত্যা করেছেন অভিনেত্রী। একটি সুইসাইড নোটও উদ্ধার করেছে পুলিশ। আর তাতে লেখা রয়েছে, ‘আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়।’

তবে ভারতীয় একাধিক গণমাধ্যম থেকে জানা গেছে, অভিনেত্রী রাশমিরেখা সন্তোষ নামে একজনের সঙ্গে লিভ-ইন সম্পর্কে ছিলেন। তার বাবার অভিযোগ, মেয়ের মৃত্যুর পেছনে লিভ-ইন পার্টনার সন্তোষের হাত রয়েছে। এরই মধ্যে অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, ওডিশা টেলিভিশন শো ‘কেমিটি কাহিবি কাহা’-তে অভিনয়ের সুবাদে পরিচিতি পান রাশমিরেখা। তার বাড়ি ভারতের জগতসিংপুর জেলার। তিনি টেলিভিশনে অভিনয় করেই মূলত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন।

স্বদেশপ্রতিদিন/ইমরান

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: +৮৮০২-৮৮৩২৬৮৪-৬, মোবাইল: ০১৪০৪-৪৯৯৭৭২। ই-মেইল : e-mail: swadeshnewsbd24@gmail.com, info@swadeshpratidin.com
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।