মঙ্গলবার ১৬ আগস্ট ২০২২ ১ ভাদ্র ১৪২৯

সেতু নির্মাণে গাছের গুঁড়ি
এম.এ হান্নান, বাউফল প্রতিনিধি
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২ আগস্ট, ২০২২, ৮:৫২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

সেতু নির্মাণে গাছের গুঁড়ি

সেতু নির্মাণে গাছের গুঁড়ি

বাউফলে দুটি সেতু নির্মাণে স্লাব ও গার্ডার ঢালাইয়ে সেন্টারিংয়ে এস.এস পাইপের পরিবর্তে গাছের গুঁড়ি ব্যবহার করা হচ্ছে। এছাড়াও নির্মাণকাজে নিম্মমানের উপকরণ ব্যবহার ও  সিডিউল অনুযায়ী কাজ না করায় বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। যদিও এলজিইডি বলছে শিউডিল মেনে কাজ হচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, চলতি অর্থ বছরে উপজেলার কাছিপাড়া-বগা জিসি সড়কে ২টি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণের উদ্যোগ নেয় বাউফলের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। দরপত্র প্রক্রিয়ায় অংশ নিয়ে কামাল হোসেন ও জুঁই এন্টারপ্রাইজ নামের দুই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে কাছিপাড়া বাজারের দক্ষিণ পার্শ্বে ১৫ মিটার দৈর্ঘ্যরে গার্ডার ব্রিজের নির্মাণকাজ শুরু করে। সেতুটির নির্মাণ ব্যায় ধরা হয় প্রায় ১ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। সেতুটির পাইলিংয়ের নির্মাণ কাজে পুুকুর চুরির অভিযোগ করেন এলাকাবাসীরা।

সিডিউল অনুযায়ী পাইলিংয়ের গভীরতা নিশ্চিত করা হয়নি। বর্তমানে সেতুটির দুই পাশে অ্যাবাটমেন্ট ওয়ালের নির্মাণ কাজ চলছে। সিডিউল অনুযায়ী ষ্টিল সার্টার ব্যবহারের নিয়ম থাকলেও আদিযুগের মতো সাটারিংয়ে বাঁকা-তারা গাছের গুড়ি ব্যবহার করা হচ্ছে। এছাড়াও ঢালাইয়ের কাজে কাদা মিশ্রিত নিম্মমানের বালু ও পাথর  ব্যবহার করা হচ্ছে।

ওই এলাকার বাসিন্দা ইয়াসিন নামের এক ব্যক্তি বলেন, কাজ শুরুর আগে প্রকল্পের সকল তথ্য সংবলিত একটি সাইনবোর্ড টানানোর নিয়ম থাকলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সে সব তোয়াক্কা না করে খেয়াল-খুশি মতো কাজ করে যাচ্ছেন। একই সড়কে ২০ মিটার দৈর্ঘ্যরে গার্ডার ব্রিজের পাইলিং নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। কোহিনুর এন্টারপ্রাইজ নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান প্রায় ২ কোটি ৪৩ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। ওই সেতুর পাইলিংয়ে ঢালাইয়ের মিশ্রণে সিডিউল অনুযায়ী সিমেন্ট ব্যবহার করা হচ্ছে না। পরিমাণে কম সিমেন্ট ব্যবহার করায় পাইলিংয়ের স্থায়ীত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

তবে এসব অনিয়মের বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে চায়নি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা।

প্রকল্পের তদারকির দায়িত্বে থাকা বাউফল উপজেলা এলজিইডির উপসহকারি প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম বলেন, সিডিউল মেনেই সকল কাজ করা হচ্ছে। কোন অনিয়ম হচ্ছে না।

এ প্রসঙ্গে বাউফল উপজেলা প্রকৌশলী  সুলতান হোসেন বলেন, কোন অভিযোগ থাকলে তদন্ত করা হবে। সঠিক মান নিশ্চিত করেই ঠিকাদারকে সেতুর নির্মাণ কাজ করতে হবে। 

স্বদেশপ্রতিদিন/ইমরান

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: +৮৮০২-৮৮৩২৬৮৪-৬, মোবাইল: ০১৪০৪-৪৯৯৭৭২। ই-মেইল : e-mail: swadeshnewsbd24@gmail.com, info@swadeshpratidin.com
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।